ঘোড়াঘাটে বিনোদন পার্কের মালিক, খদ্দের পতিতাসহ ৫ জনের কারাদন্ড


প্রকাশের সময় : জুন ১০, ২০২৩, ৫:২১ অপরাহ্ণ / ১২৪৪
ঘোড়াঘাটে বিনোদন পার্কের মালিক, খদ্দের পতিতাসহ ৫ জনের কারাদন্ড

ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে বহুল আলোচিত কথিত মোজাম বিনোদন পার্ক থেকে পার্কের মালিক মোজাম্মেল হক মোজাম ও ২ খদ্দের পতিতা সহ ৫ জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

শনিবার (১০ জুন) দুপুরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাহমুদুল হাসান ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ৫ জনকে কারাদন্ড প্রদান করেন। এর আগে বেলা ১২টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোখলেছুর রহমানের নেতৃত্বে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাফিউল আলম ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদুল হাসান সহ ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু হাসান কবির সঙ্গীয় ফোর্সসহ কথিত এ বিনোদন পার্কে এক অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আটক করে।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার কলমদারপুর গ্রামের মজমুল হকের ছেলে সিদ্দিকুল রহমান (২৫) ও গাইবান্ধার পলাশবাড়ী সদর উপজেলার শফিকুল ইসলামের ছেলে সামিউল ইসলাম (১৯),  এবং ২ পতিতা খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার বেলছুড়ি গ্রামের মৃত- জামাল মিয়ার মেয়ে ময়না বেগম (২৩) ও বগুড়া সদর উপজেলার বুলু সরকারের মেয়ে সোমা খাতুন (২১)। এছাড়া অপরদন্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি হলেন, কথিত বিনোদন পার্কের মালিক মোজাম্মেল হক মোজাম। এ সময় আদালতে পার্কের মালিক মোজামকে ৩ মাস ও খদ্দের পতিতাসহ ৪ জনকে ১ মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এ নিয়ে ১ সপ্তাহের মধ্যে এ পার্ক থেকে ৮ জন পতিতা ও ১১ জন খদ্দেরকে আটক করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য, সমাজ সেবক মাহমুদুল হক দাবী করেন, অতিদ্রæত জেলা প্রশাসক মহোদয় যদি এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করেন তাহলে পার্কের নামে এটি পতিতালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত রূপ নিবে।
১নং ইউপি চেয়ারম্যান সদের আলী খন্দকার জানান, বিনোদন পার্কের নামে এই পার্কে প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে পতিতা নিয়ে এসে পার্কের মালিক মোজাম্মেল হক বিনোদন পার্কের পরিবর্তে একটি পতিতালয় খুলে বসেছে। অতিসত্বর এ পার্কটি নিষিদ্ধ ঘোষণা না করা হলে এলাকাসহ আশেপাশের যুব সমাজ ধ্বংসের মুখে পতিত হবে।