গাইবান্ধা-০৫ আসনের সংসদ সদস্য রুস্তম আলী মোল্লা ইন্তেকাল করেছেন


প্রকাশের সময় : জুন ৬, ২০২৩, ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ / ১৭২৫
গাইবান্ধা-০৫ আসনের সংসদ সদস্য রুস্তম আলী মোল্লা ইন্তেকাল করেছেন

প্রতিনিধি,গাইবান্ধা:

গাইবান্ধা-০৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনের সাবেক সংসদ  জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহামুদুনবী টিটুল এর পিতাক রুস্তম আলী মোল্লা বার্ধক্যজনিত কারনে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিবকৎসাধীন অবস্থায় আজ সাকলে সকালে ইন্তেকাল করেছেন ( ইন্না…রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর। সাঘাটা উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ আলী জানান, আজ (ম্ঙ্গলবার) সকাল ৯টার সময় বগুড়ার টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিবকৎসারত অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন।

১৯৭৯ সালের নির্বাচনে গাইবান্ধা-৬ আসনে  বিএনপি থেকে তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।  স্বচ্ছ্ব রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে তিনি  শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের অত্যন্ত আস্থাভাজন ও ব্যক্তিগত সহচর ছিলেন। এছাড়াও তিনি দীর্ঘসময় শিক্ষকতা পেশার সাথে যুক্ত ছিলেন এবং সব শেষে সাঘাটা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

জীবনের শেষ সময়ে তিনি সরাসরি রাজনৈতিক অ্ঙ্গন থেকে অনেকটাই দুরে থাকলেও জেলা বিএনপির উপদেষ্টা হিসেবে যুক্ত ছিলেন।  তিনি ছিলেন ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক।

মরহুম রুস্তম আলী মোল্লার  জন্মস্থান গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি উপজেলার চর দেলুয়াবাড়ি গ্রামে। তিনি গাইবান্ধা শহরে পশ্চিমপাড়ায় বসবাস করতেন। মরহুমের ৫ পুত্র ও ২ জন কন্যা সন্তান। বড় সন্তান বর্তমানে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ৩ পুত্র এমবিবিএস চিকিৎসক হিসেবে সরকারি বিভিন্ন হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করছেন। আরেকজ আরেকজন ঠিকাদারী পেশায় যুক্ত আছেন। এক কন্যা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এবং আরেকজন শিক্ষকতা করছেন। মুত্যুকালে তিনি আত্মীয়স্বজনসহ অসংখ্য শুভাকা্ঙখী রেখে গেছেন।

সাঘাটা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও ঘুড়িদহ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সেলিম আহম্মেদ তুলিপ জানান, বর্ষিয়ান এই নেতার মৃত্যু গাইবান্ধা মানুষ রাজনৈতিক অ্ঙ্গনের একজন অভিভাবক হারালেন। রুস্তম আলী মোল্লার মৃত্যুতে বিভিন্ন সংগঠন ও শ্রেণি-পেশার মানুষ শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

আজ (ম্ঙ্গলবার) বাদ আসর গাইবান্ধা গোরস্থান জামে মসজিদে জানাযা শেষে কেন্দ্রীয় গোরস্থানে দাফন করা হবে জানান বড়পুত্র মাহমুদুন্নবী টুটুল।