ভরতখালীতে একযুগ পর আ’লীগ নেতার ব্যক্তিগত দখলে থাকা দলীয় কার্যালয়ের জায়গা উদ্ধার!


প্রকাশের সময় : জুন ১১, ২০২৩, ৩:৪৭ অপরাহ্ণ / ৮২৬
ভরতখালীতে একযুগ পর আ’লীগ নেতার ব্যক্তিগত দখলে থাকা দলীয় কার্যালয়ের জায়গা উদ্ধার!

সাঘাটা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার ভরতখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের দলীয় অফিসের বেদখলের থাকা জায়গা আওয়ামীলী নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট থেকে উদ্ধার করেছে বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা।
সাঘাটা উপজেলার ২নং ভরতখালী ইউনিয়ন পরিষদে দায়েরকৃত অভিযোগপত্র থেকে জানা যায়, দীর্ঘদিন এই পুরাতন আওয়ামীলীগ অফিস ব্যবহৃত না হওয়ায় ২০১১ সালে ভরতখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান থাকার সুবাদে শামসুল আজাদ শীতল পুরাতন কার্যালায়টির জায়গায় দখলে নিয়ে দুটি চায়ের দোকান, একটি মুরগির দোকান ও একটি মুদির দোকান স্থাপন করেন। তিনি চলতি মাসে দোকানঘরগুলোকে স্থায়ী পাকার ঘরে উন্নীতকরণের লক্ষ্যে কার্যালয়ের সামনে কয়েক হাজার ইটের স্তুপ করেন। বিষয়টি স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের নজরে আসলে দলীয়ভাবে জায়গাটি উদ্ধারের জরুরী সভা করে জমিটি উদ্ধারের সিদ্ধান্ত নেন।
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কামরুল ইসলাম কাদেরী নিয়াজ জানান, উদ্ধারকৃত জায়গাটি ১৯৯২ সাল আওয়ামীগের অফিস ছিল। প্রথমে জাতীয় পার্টি পরে আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ের নামে লীজ নেয়া আছে। এটি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে ব্যক্তিগত দখলে নিয়ে ভাড়া হাতিয়ে নিয়েছেন। স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ হাসান রিপন ও জেলা আওয়ামিলীগের সভাপতি, উপজেলা আওয়ামিলীগের সকল নেতৃবৃন্দকে অবগত করেই আওয়ামীরীগের অ্ঙ্গ সংগঠনের অফিস হিসেবে এটি উদ্ধার করা হয়েছে। জায়টি ফিরে পাওয়ায় স্থানীয় দলীয়নেতা-কর্মীরা বেশ খুশি এবং সকল অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীদের জন্য সুবিধা হয়েছে বলে জানান।
সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা শামসুল আজাদ শীতলের সঙ্গে কথা হলে তিনি সংবাদ কে জানান, ৯৪ সালে রেলের এই জায়গাটি নিলামে উঠলে এটি দখলে নিয়ে ভোগদখল করে আসছি। এই স্থানে ইট নিয়ে দোকানপাঠ মেরামত করতে গিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদের চোখে পড়ে। বিষয়টি তিনি স্থানীয় সংসদ মাহমুদ হাসান রিপনকে জানিয়েছে বলে জানান। দলীয় স্বার্থে কোন ধরণের বিভেদ যাতে না হয় এজন্য আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এটি সমাধান প্রত্যাশা করছেন। তবে, তিনি বর্তমানে স্থানীয় চেয়ারম্যানের নির্বাচনী প্রতিহিংসার শিকার হচ্ছেন বলে অভিমত ব্যক্ত করেন।
ভরতখালী ইউনিয়ন আওয়ামীণীগের সহ-সভাপতি ও বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান, ফারুক হোসেন জানান সাবেক চেয়ারম্যান শামসুল আজাদ শীতল ২০১১ সাল থেকে দলীয় এই জায়গা দখল করে ব্যবসা করেছেন যা অন্যায় করেছেন এবং দলীয় স্বার্থ বিরোধী কাজ করেছেন।